খেলাপি ঋণ কমেছে জনতা ব্যাংকে

২০১৪ সাল শেষে ব্যাংকের খেলাপি ঋণের হার কমে ১০ দশমিক ৩৪ শতাংশে নেমে এসেছে। আগের বছর শেষে যা ১১ দশমিক ১১ শতাংশ ছিল। এ ছাড়া গত বছর খেলাপি ঋণের ৭৩৪ কোটি টাকা আদায় হয়েছে। অবলোপন করা হয়েছে ১৫১ কোটি টাকা। এ ছাড়া আমদানি, রফতানি, রেমিট্যান্সসহ সার্বিক সূচকের বেশ উন্নতি হয়েছে। সামনের দিনে সার্বিক সূচকের আরও উন্নতি করার চেষ্টা করা হবে। গতকাল রোববার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলনে এ সব তথ্য জানানো হয়।
ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান শেখ ওয়াহিদ-উজ-জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের সার্বিক সূচক তুলে ধরেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুস সালাম। এ সময় বেশিরভাগ পরিচালক ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এম এ মান্নান বলেন, বেসরকারি খাত এখন অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব হলো বেসরকারি খাতের ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগে সহায়তা করা। এ জন্য খেলাপি ঋণ কমানো জরুরি।
তাতে কম সুদে বেশি সংখ্যক উদ্যোক্তাকে ঋণ দেওয়া যাবে। সাম্প্রতিক সহিংস রাজনৈতিক কর্মসূচির প্রতি ইঙ্গিত করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার ৪৪ বছর পরও স্বাধীনতার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হয়নি। এ ছাড়া তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর ব্যাংক সেবা দেওয়ার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তিনি।
শেখ ওয়াহিদ-উজ-জামান বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের মধ্যে ২০১৪ সালে জনতা ব্যাংক সার্বিক সূচকে ভালো করেছে। এই ধারা অব্যাহত রেখে আগামীতে আরও ভালো করা হবে।