নাচোলে এক ভন্ড কবিরাজ!

জ্বীন ভুতের চিকিৎসার নামে ঝাড় ফুঁ আর তাবিজ দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা

চাঁপাইনবাবগঞ্জে’র নাচোলে এক ভন্ড কবিরাজ জ্বীন ভুতের চিকিৎসার নামে ঝাড় ফুঁ আর তাবিজ দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা । প্রতারিত হচ্ছে নিরীহ মানুষ ।
সরেজমিন ও এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা গেছে নাচোল উপজেলার মোহাম্মাদপুর দিঘীপাড়া গ্রামের হানিফ মন্ডলের ছেলে রেজাউল হক (৩৫) দীর্ঘদিন থেকে চিকিৎসার নামে মানুষকে প্রতারিত করে ঝাড় ফুঁ আর তাবিজ দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। সর্ব রোগের চিকিৎসা দেওয়া হয় ও তার কাছে জ্বীন ভূত আছে এই বলে মানুষকে প্রতারিত করছে ।

প্রতিবেশীরা অভিযোগ করে বলেন, ক্লাশ থ্রী পর্যন- লেখাপড়া করেছেন কবিরাজ রেজাউল হক, পিতা জীবিত থাকায় এক কাঠা জমি তার নামে লিখে দেয়নি । এক সময় তার কিছুই ছিলনা, বর্তমানে সে মানুষকে প্রতারিত করে একটি ৮/১০ লাখ টাকার ফ্যাট বাড়ি তৈরী করেছেন।

নাচোল উত্তর সাকোপাড়া গ্রামের মজিবুর রহমানের স্ত্রী রিজিয়া বেগম জানান,ওই কবিরাজের কাছে ডায়াবেটিস’র জন্য কবিরাজী মতে ঔষুধ খেতে গিয়ে মৃত্যুর কাছ থেকে ফিরে এসেছেন ।

গোমস-াপুর উপজেলার কালুপুর গ্রমের সেনাউল হক’র স্ত্রী সেরিনা (৪০) জানান ১২’শ টাকা খরচ করেও আরোগ্য বুঝতে পারেনি ।

নাচোল বান্দ্রা গ্রামের মিজানুর রহমানের স্ত্রী লিপি বেগম (২৩) শরীর দুর্বলের জন্য তাবিজ নিয়েও কোন উপকার পায়নি । রাজশাহীর তানোর উপজেলার কোইল লোনাপুর গ্রামের হরি দাসের ছেলে মেরু দাস জানান তার মা’র জন্য ৫’শ টাকা দিয়ে ঔষুধ নিয়ে ১৫দিন পার হলেও কোন উপকার বুঝতে পারেনি ।

কবিরাজ রেজাউল হক এর বাসায় গিয়ে দেখা যায় কয়েক বস-া খালি টাইগার,আরসির লেভেল বিহীন প্লাষ্টিক বোতল রয়েছে, সেই সাথে মেঝেতে রয়েছে অপরিছন্ন অবস’ায় বিভিন্ন গাছ গাছড়ার ছাল,বিচি ইত্যাদী।

নেই কোন ডাক্তারী যন্ত্র পাতি, নেই কোন ট্রেড কিংবা কবিরাজির লাইসেন্স, শিক্ষা দিক্ষায় নেই কোন সার্টিফিকেট,নেই কোন কবিরাজী বই পত্র, শুধু জ্বীন ভুত আছে ।

জীন দ্বারা চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয় সেই সাথে বিভিন্ন প্রকার গণাপড়া করা হয় বলে জানান কবিরাজ রেজাউল । সে প্রতারনার মাধ্যমে দীর্ঘদিন থেকে এ ধরনের কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে প্রতিদিন। দুর দুরান- থেকে আসা ১০/১৫টি অসহায় মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা।

এ ব্যাপারে নাচোল উপজেলা স্বাস’্য বিভাগের ইউএইচ্‌এ ডাঃ টি আই এম বেলাল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন ঝাড়,ফু ও জ্বীন ভুতের দ্বারা চিকিৎসা এটি সম্পুর্ন ভীত্তিহীন। তার মতে এটি প্রতারনা ছাড়া কিছুই নয়।
ভুক্ত ভোগীরাসহ ওই এলাকার সচেতন মহলের দাবী কবিরাজ রেজাউল হক’র দৃষ্টান- মুলক শাসি-সহ তার প্রতারনা কর্মকান্ড বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের নিকট জোর ুদাবি জানিয়েছেন ।