পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত

সমকাল প্রতিবেদক
দাবি পূরণের আশ্বাস পাওয়ায় ১৫ দিনের জন্য আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত করেছেন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। গতকাল সোমবার বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে
অনুষ্ঠিত শিক্ষা ও গণপূর্ত সচিবের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষার্থীরা। এর আগে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা পাস করা শিক্ষার্থীদের কর্মক্ষেত্রে সুপারভাইজারের পরিবর্তে উপসহকারী প্রকৌশলী পদমর্যাদা দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। এ জন্য আইন সংশোধনের প্রক্রিয়া চলছে।
কর্মসূচি স্থগিত করায় দেশের সরকারি-বেসরকারি সব পলিটেকনিট ইনস্টিটিউটে চার দিন ধরে চলমান বিক্ষোভ, অবরোধ ও ভাংচুরের আপাত অবসান হলো। গতকালও দেশব্যাপী বিভিন্ন স্থানে পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা হামলা, ভাংচুর ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন। এ পরিপ্রেক্ষিতে সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব খোন্দকার শওকত হোসেন এবং শিক্ষা সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সঙ্গে কারিগরি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা বৈঠক করেন।
বিকেলে দ্বিতীয় দফা বৈঠকের পর বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক জাকির হোসেন সাগর বলেন, ‘আমরা ১৫ দিন সময় দিয়েছি। এর মধ্যে তারা আমাদের সব দাবি পূরণ করবেন বলে কথা দিয়েছেন। এ জন্য আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত করেছি।’
বৈঠক শেষে শিক্ষা সচিব বলেন, যারা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করবেন, তারা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী হিসেবেই বিবেচিত হবেন; সুপারভাইজার হিসেবে নয়। এ সময় উপস্থিত গণপূর্ত সচিব বলেন, চাকরিতে প্রবেশের সময় ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের উপসহকারী প্রকৌশলী হিসেবে বিবেচনা করা হবে। এ বিষয়ে ২০০৮ সালের গেজেট সংশোধনের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।
প্রকৌশলীর সংজ্ঞায় ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের অন্তর্ভুক্ত করে ২০০৮ সালের একটি গেজেট সংশোধন এবং ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি ও প্রশিক্ষণ ভাতা বাড়ানোর দাবিতে কয়েক দিন ধরে দেশব্যাপী আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।
গত সন্ধ্যায় সমকালের সঙ্গে আলাপকালে জাকির হোসেন সাগর বলেন, ‘আপনারা পরীক্ষায় অংশ নেবেন। কেউ আর রাজপথে থাকবেন না।’
শিক্ষা সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী সমকালকে বলেন, ‘আইনে যেসব জায়গায় অস্পষ্টতা আছে, তা সংশোধন করা হবে।’
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আতোয়ার রহমান, কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. শাহজাহান মিঞা, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. আবুল কাশেম, স্থাপত্য অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসির, রাজউকের সদস্য (পরিকল্পনা) শেখ আবদুল মান্নান, আইডিইবির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ ও সহসভাপতি এ কে এম আবদুল মোতালেব, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব হাবিবুর রহমান সকালের প্রথম বৈঠকে অংশ নেন।