সংলাপের অনুরোধ অব্যাহত রাখবে যুক্তরাষ্ট্র

একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন আয়োজনের লক্ষ্যে বাংলাদেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি সংলাপে বসার অনুরোধ অব্যাহত রাখবে যুক্তরাষ্ট্র।
জাতির উদ্দেশে দেওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মার্কিন দূতাবাসের মুখপাত্র গতকাল শনিবার এ মন্তব্য করেন।
ঢাকায় ইউরোপীয় মিশনগুলোতে কর্মরত একাধিক কূটনীতিক গতকাল অনানুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে তাঁরা প্রধানমন্ত্রীর ভাষণকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন। সর্বদলীয় সরকারের ব্যাপারে বিরোধীদলীয় নেত্রীর কাছে প্রধানমন্ত্রীর এই প্রস্তাব ইতিবাচক মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ।
ঢাকায় কর্মরত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকেরা সব দলের অংশগ্রহণে আগামী সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়টিতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন। নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করাটা অপরিহার্য বলে মনে করেন এই কূটনীতিকেরা।
জাতিসংঘের সদর দপ্তরের রাজনৈতিক শাখাও মনে করে, নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ এবং সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরি করাটা আগামী নির্বাচনের জন্য অপরিহার্য। সম্প্রতি নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন এ বিষয়গুলোতে গুরুত্ব দিয়েছেন বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানিয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর শুক্রবারের ভাষণের ব্যাপারে জানতে চাইলে মার্কিন দূতাবাসের মুখপাত্র গতকাল দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, ‘ইতিবাচক সংলাপের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠান আয়োজনের একটি সম্মত উপায় খুঁজে বের করতে বাংলাদেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোকে আমরা অব্যাহতভাবে আহ্বান জানিয়ে যাব। কারণ, এ ধরনের একটি সম্মত পথ খুঁজে পাওয়া গেলে তা আগামী কয়েক মাসের মধ্যে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন আয়োজন নিশ্চিত করবে।’
মার্কিন দূতাবাস মনে করে, এ ক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার উপায় হচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলোর ঐকমত্য।
মার্কিন মুখপাত্র বলেন, ‘দুই দল অর্থবহ সংলাপে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে যে আন্তরিকতা প্রকাশ করেছে, তাতে আমরা উৎসাহবোধ করছি।’ প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের ব্যাপারে মার্কিন দূতাবাস আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিক্রিয়া জানালেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাজ্য হাইকমিশনের মনোভাব জানা যায়নি।
কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানিয়েছে, ইইউ কিংবা যুক্তরাজ্য প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবের বিষয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়া দেখতে চাইছে। এরপর এই দুটি মিশন সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে তাদের মনোভাব প্রকাশ করতে পারে।